ওশেন মেরিটাইম একাডেমীর রেটিং ৫ম ব্যাচের পাসিং আউট প্যারেড-২০১৯ অনুষ্ঠিত

ওশেন মেরিটাইম একাডেমি দেশের বেসরকারি মেরিন  একাডেমির মধ্যে অন্যতম। চট্রগ্রামের ফৌজদারহাটের তুলাতলি রোডে অবস্থিত এই একাডেমির একাধিক ক্যাম্পাস রয়েছে। চট্রগ্রাম পোর্ট কানেকটিং রোডের পাশে মনোরম প্রাকৃতিক বিশাল জলরাশি ও পাহাড়ী অরণ্যঘেরা স্থানে রয়েছে এর ২য় ক্যাম্পাস,ট্রেনিং সেন্টার, অডিটরিয়াম, প্যারেড গ্রাউন্ড,ভাসমান জাহাজ ও জেটি রয়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য নিজস্ব হোস্টেল ও ক্যান্টিন রয়েছে। দেশে কয়েকটি মেরিটাইম একাডেমি রয়েছে, যেখানে জল ও সমুদ্রের স্পর্শ নেই। জাহাজ দেখতে হলে বা দেখাতে হলে কেবল কম্পিউটারের সহয়তা নিতে হবে। কিন্তু ওশেন মেরিটাইম একাডেমির এসব দিক থেকে ব্যতিক্রমী প্রতিষ্ঠান। তাদের এ সব কিছু রয়েছে হাতের নাগালে। চট্রগ্রামের সমুদ্র পাড়ের নিকটে গড়ে উঠা এই একাডেমির উদ্যোক্তা হলেন চট্রগ্রাম মেরিন ফিশারিজ একাডেমির প্রাক্তন ছাত্র মেরিন ইঞ্জিনিয়ার মারুফ মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম ইসলাম। তিনি সমুদ্র গামী জাহাজে কাটিয়েছেন জীবনের দীর্ঘ সময়। দেশে ফিরে গড়ে তুলেছেন মেরিটাইম একাডেমি,মেরিটাইম ট্রেনিং সেন্টার, মেরিন সার্ভিস ওয়ার্কশপ এবং ম্যানিং এজেন্ট। যারা এখানে পড়াশুনা করছে, ট্রেনিং নিচ্ছে  তাদের কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা দেয়ার জন্য গোল্ডেন ক্যারিয়ার শিপ ম্যানেজমেন্ট নামক নিজস্ব ম্যানিং এজেন্সির মাধ্যমে বিশ্বময় তাদের কর্মযজ্ঞ রয়েছে। এখানে ক্যাডেট ও রেটিং কোর্সে যারা পড়ালেখা শেষ করেছে তাদের কেউ বেকার নেই। কেননা মেরিনারদের চাহিদা এখন বিশ্বময় বেড়ে চলেছে।

সম্প্রতি উক্ত একাডেমির রেটিং ৫ম ব্যাচের পাসিং আউট অনুষ্টান অনুষ্ঠিত হয় নিজস্ব ক্যাম্পাসে।রেটিং শিক্ষার্থীদের পাসিং আউট উপলক্ষ্যে আয়োজিত প্যারেড-২০১৯ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন একাডেমির শিক্ষক, শিক্ষার্থী, অভিভাবক ও আগত অতিথিবৃন্দ। ৯ নভেম্বর ২০১৯তারিখের এই অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকার বিষয়ে আগ্রহ ব্যক্ত করেছিলেন নৌ- পরিবহন অধিদপ্তরের মহা পরিচালক কমডোর সৈয়দ আরিফুল ইসলাম এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার বিষয়ে আগ্রহ ব্যক্ত করেছিলেন নৌ-পরিবহন অধিদপ্তরের কন্টোলার অব মেরিটাইম এডুকেশন ক্যাপ্টেন মোঃ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ। প্রাকৃতিক বৈরী পরিবেশের কারণে তাঁরা যেতে পারেনি, কিন্তু তাদের পক্ষে বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শিপিং মাস্টার মোঃ জাকির হোসেন চৌধুরী ও মেরিন চীফ ইঞ্জিনিয়ার মোঃ রফিকুল ইসলম আলম।

 

 

 

 

 

উক্ত অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অঙ্গনে মেরিটাইম শিক্ষা বিকাশের যারা অবদান রেখে চলেছেন তাদেরকে  সম্মাননা এওয়ার্ড দেওয়া হয়। বিশেষ করে উক্ত মেরিটাইম একাডেমির স্বপ্নদ্রষ্টা ও প্রতিষ্ঠাতা ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেরিন ইঞ্জিনিয়ার মারুপ মোহাম্মদ জহিরুল ইসলামের পিতা জাতীয় পর্যয়ে দু”বার শ্রেষ্ঠ শিক্ষকের মর্যাদাপ্রাপ্ত ব্যক্তি জনাব আবু তাহের মাস্টারকে বিশেষ ভাবে সম্মানিত করা হয়। তিনি নোয়াখালী জেলার চাটখিল উপজেলায় অবস্থিত সপ্তগাঁও আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।